শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৬:৫১ পূর্বাহ্ন


রিক্সাচালক লাল মিয়ার সততার কারণেই ব্যবসায়ী রাজীব প্রসাদ ফিরে পেলেন ২০ লাখ টাকা। রাজিব প্রসাদ জেলার নন্দীগ্রাম উপজেলার রনবাঘা বাজারে রাসায়নিক সারের ব্যবসা করেন এবং সপরিবারে বগুড়া শহরে বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করেন।

জানা গেছে, সার ব্যবসায়ী রাজীব প্রসাদ বগুড়া শহরের জ্বলেশ্বরীতলার ভাড়া বাসা থেকে রিকশাযোগে শহরের সাতমাথায় আসেন তিনটি হাত ব্যাগ নিয়ে যার একটিতে ছিল প্রায় ২০ লাখ টাকা। তিনি ভুল বশত রাজশাহী যাবার তাড়ায় রিকশাতেই ফেলে যান টাকাভর্তি ব্যাগটি।

এরপর তিনি গাড়ীতে উঠে বিষয়টি টের পেরে সাতমাথায় রিকশাচালককে খুঁজেন। কিন্তু না পেয়ে সদর থানায় বিষয়টি অবহিত করেন। অপরদিকে রিকশাচালক তাকে খুঁজে না পেয়ে শহরের খান্দারের ভাড়া বাসায় টাকা রেখে পুনরায় খুঁজতে থাকেন । এ সময় পুলিশ অন্যান্য রিকশাচালকদের সহায়তায় তাকে সিসি টিভি ফুটেজ দেখে খান্দার গিয়ে তাকে জিজ্ঞসা করলে লাল মিয়া বিষয়টি স্বীকার করেন। এরপর তার বাড়ীতে নিয়ে গিয়ে টাকা ফেরত দেন।

আরও পড়ুন