বুধবার, ১৭ Jul ২০১৯, ০৩:১৭ অপরাহ্ন


সম্প্রতি কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় ময়না খাতুন (৩৫) নামের এক গৃহবধূকে পারিবারিক বিরোধের জেরে গাছের সাথে বেঁধে উলঙ্গ করে মাথার চুল কেটে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামীর আগের পক্ষের স্ত্রীর পরিবারের লোকজনের বিরুদ্ধে।

জানা যায়, গত ২৪ মার্চ বিকেলে ময়নার স্বামীর আগের পক্ষের আত্মীয়রা তাকে বাড়ির পাশের একটি গাছের সঙ্গে বেঁধে উলঙ্গ করে চুল কেটে দেয়। এরপর চলে তার ওপর অমানুষিক নির্যাতন। প্রথমে ময়নার শ্বশুরবাড়ির লোকের ভয়ে প্রতিবেশীরা না এগোলেও তার আর্তচিৎকারে পথ চলতি লোক এগিয়ে আসে এবং তাকে উদ্ধার করে মুমূর্ষু অবস্থায় ভর্তি করা হয় ভেড়ামারা উপজেলা হাসপাতালে।

এ ব্যাপারে সেই নির্যাতিতা নারী বলেন, ‘আমার সাথে ঘটে যাওয়া অমানুষিক নির্যাতনের আমি বিচার চাই। এমন নির্যাতনের শিকার যেন আর কোন নারী না হয়।’

এ বিষয়ে তার স্বামী আসলাম বলেন, ‘আমি বিয়ে করেছি ভুল করেছি তার জন্য আইন আছে। তবে আমার আগের পক্ষের তারা আমার স্ত্রীর উপর যে নির্যাতন চালিয়েছে তার সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।’

এরপর এ ঘটনায় নির্যাতনের শিকার হওয়া ময়না খাতুনের ভাই আব্দুর রশীদ বাদী হয়ে ভেড়ামারা থানায় সাতজনের নাম উল্লেখ করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন।

এদিকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ভেড়ামারা থানার ওসি শামীম খন্দকার বলেন, ‘মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।’

আরও পড়ুন