মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ০৫:৫১ অপরাহ্ন


বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত ভারতকে হারাতে পারেনি পাকিস্তান। ছয়বারের দেখায় প্রতিবারই হারের তেতো স্বাদ পেতে হয়েছে পাকিস্তানকে। ওই ইতিহাস ভুলে ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির জয়ের কথা ভেবে নিজেদের অনুপ্রাণিত করার পরামর্শ দিয়েছে পাকিস্তানের কিংবদন্তি পেসার ওয়াকার ইউনুস।

তার মতে, কোহলির ভারত মোটেও অজেয় নয়। তাদের হারাতে হলে খুবই ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে। সেই ভালোর একটি মাত্রাও ঠিক করে দিয়েছেন ওয়াকার, ‘এ প্লাস’ ক্যাটাগরির পারফরম্যান্স করতে হবে সরফরাজদের।

অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে দশ দলের বিশ্বকাপের পয়েন্ট টেবিলে অষ্টম স্থানে নেমে গেছে পাকিস্তান। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের বিপক্ষে ম্যাচটা এখন তাদের টুর্নামেন্টে টিকে থাকার লড়াইয়ে পরিণত হয়েছে।

আইসিসির ওয়েবসাইটে লেখা এক কলামে সে অবস্থাটাই তুলে ধরেছেন ওয়াকার ইউনুস, ‘সব সময়ই পাকিস্তান-ভারত ম্যাচ মানেই বিরাট কিছু। তবে রোববারের ম্যাচটি অতীতের যে কোনো সময়ের চেয়ে অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। যদি পাকিস্তান টুর্নামেন্টে টিকে থাকতে চায় অবশ্যই তাদের ‘এ প্লাস’ পারফরম্যান্স করতে হবে এবং ম্যাচটি জিততে হবে।’

পাকিস্তান চাপে থাকলেও ভারত আছে ফুরফুরে মেজাজে। তিন ম্যাচে পাঁচ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের তৃতীয় স্থানে তারা। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ইতিহাসও থাকবে বিরাট কোহলির দলের পক্ষে। তবে ইতিহাসকে পাত্তা দিতে রাজি নন ওয়াকার, ‘এটা ঠিক পাকিস্তানের রেকর্ড খুব একটা ভালো নয়। কিন্তু সেসব তো অতীত। এটা নতুন একটি ম্যাচ, একটি নতুন দিন।’

বিশ্বকাপের ইতিহাস নিয়ে না ভেবে দুই বছর আগের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির জয় থেকে সরফরাজদের অনুপ্রেরণা নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে ভারতকে ১৮০ রানে হারিয়ে শিরোপা জিতেছিল পাকিস্তান, ‘বিশ্বকাপে কী হয়েছে সেসব না ভেবে ছেলেরা বরং চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জয়ের কথা চিন্তা করুক। আশা করি ভারতের বিপক্ষে খেলবে বলে নিজেদের সেরা খেলাটা লকারে তুলে রেখেছে পাকিস্তান।’

গত ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৪১ রানে হারলেও ক্যারিয়ারসেরা বোলিং করেছেন মোহাম্মদ আমির। আমিরের সঙ্গে অন্যদেরও জ্বলে ওঠার আহ্বান জানিয়েছেন ওয়াকার, ‘অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে অন্য প্রান্তে থেকে আমির সমর্থন পায়নি। সে একা চেষ্টা করে গেছে। এজন্য তাকে অভিবাদন।’

আরও পড়ুন