বুধবার, ২১ অগাস্ট ২০১৯, ১০:১৮ অপরাহ্ন


বাংলাদেশের বিপক্ষে নিজেদের ২য় ম্যাচে ২১ রানে হেরেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। আর এমন হার কোনভাবেই মেনে নিচ্ছেন না দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক। এইদিকে বাংলাদেশের হারে বাংলাদেশ দলকে ক্রেডিট দিবেন্তো দূরের কথা উল্টো ডু প্লেসি বললেন নিজেদের দোষে তারা বাংলাদেশের মতো দলের সাথে হেরেছে।

এই ব্যাপারে তিনি বলেন ,’ আমাদের যাত্রাটা সহজ হতে যাচ্ছে না। দক্ষিণ আফ্রিকা গর্বিত খেলুড়ে দেশ। আজকে আমাদের স্কিলটা যথাযথ দেখাতে পারিনি। তবে আমি ওয়াদা করছি সামনের ম্যাচগুলোতে আরও বেশি লড়াই হবে। আজ আমরা হয়তো ৫০-৬০ শতাংশ দিয়ে খেলেছি। যা দেখিয়েছে যে এমন দিনে বাংলাদেশও আমাদের হারিয়ে দিতে পারে। বাংলাদেশের মতো দলের স্তাহেও হারতে পারি আমরা!

ম্যাচেরর শুরতেই সৌম্য সরকারের উত্তাল শুরু, সেখান থেকে মিডল অর্ডারে সাকিব আল হাসান ও মুশফিকুর রহীমের রেকর্ড জুটি এবং শেষে গিয়ে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মোসাদ্দেক সৈকতের ঝড়ো ফিনিশিংয়ে নিজেদের ইতিহাসের সর্বোচ্চ ৩৩০ রানের সংগ্রহ দাঁড় করায় বাংলাদেশ।

পরে বল হাতেও কখনোই ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ দক্ষিণ আফ্রিকার দিকে ঝুঁকতে দেননি সাকিব, মিরাজ, মোস্তাফিজরা। তেমন কোনো বড় জুটিও গড়তে পারেনি প্রোটিয়ারা। শেষপর্যন্ত ৮ উইকেট হারিয়ে ৩০৯ রানে থামে তাদের ইনিংস। স্পষ্টত বোঝা যাচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকাকে স্রেফ উড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ।

কিন্তু ম্যাচ শেষে এমন জয়ের পর বাংলাদেশকে কৃতিত্ব দেয়া দূরে থাক, সামান্য অভিবাদনও জানাননি দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস। উল্টো এ জয়কে বাংলাদেশের কৃতিত্বের চেয়ে বেশি নিজেদের ব্যর্থতা হিসেবে চালিয়ে দেয়ার ইচ্ছাই বেশি প্রকাশ পায় তার কথায়।

পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে পরাজিত অধিনায়কের মন্তব্য জানাতে এসে ডু প্লেসিস বলেন, ‘আজকে আমাদের কোনো কিছুই পক্ষে আসেনি। লুঙ্গি ইনজুরিতে পড়ে যায় শুরুতেই। যা আমাদের পেছনে ঠেলে দেয়। প্রথম ইনিংসে ৩৩০ রান গড়পড়তার চেয়ে বেশিই ছিল। যা আমাদের জন্য উপযুক্ত ছিলো না। গ্রাউন্ডসম্যানের সঙ্গে কথা বলেই আমি টসের সিদ্ধান্তটি নিয়েছিলাম।’

এসময় ডু প্লেসিস জানান আজকের (রোববার) ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে নিজেদের ৫০-৬০ শতাংশও দিতে পারেনি তার দল। তাই বাংলাদেশের মত দলও জয় পেয়ে গিয়েছে তাদের বিপক্ষে।

আরও পড়ুন