বুধবার, ২১ অগাস্ট ২০১৯, ১০:৫০ অপরাহ্ন


আগামীকালকেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই মাঠে নামছে বাংলাদেশ দল। সেই ম্যাচের আগেই বাংলাদেশ দল নেওয়া শুরু করেছে প্রস্তুতি। তবে আজকের ম্যাচের অনুশীলনের সময়তেই চোটে পড়েন রিয়াদ।

যার কারণে পরের ম্যাচেই তার বোলিং করা অনিশ্চিত হয়ে দাঁড়িয়েছে। রোববার ওভালে বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে নামছে বাংলাদেশ। এই মাঠে হওয়া আগের ম্যাচের হিসাব তাই চলে এসেছে অবধারিতভাবে। স্পিনারদের বল গ্রিপ করেছে বেশ। এই কারণে একাদশ তৈরি করার ভাবনাতেও আছে স্পিনার বাড়ানোর চিন্তা। কিন্তু স্পিনার বাড়াতে গিয়ে পেসার ছাঁটলেও চলছে না। দরকার অলরাউন্ডারের। সেক্ষেত্রে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ দিতে পারতেন সমাধান। কিন্তু তিনি বোলিং করতে না পারার কারণে জোর বিবেচনায় এসে গেছেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।

উইকেটের হাবভাব দেখেই যে এমন চিন্তা তা আগের দিন স্পষ্ট করেছেন মাশরাফি, এমন উইকেট থাকলে নিজেদের জন্য সুবিধার কথাও আড়াল করলেন না তিনি, ‘গত ম্যাচে ওভালে যেটা দেখছি বল কিছুটা গ্রিপ করছিল। যদি এমন হয় তাহলে আমাদের জন্য ভালো। যদি বল গ্রিপ করে আমাদের পেসাররাও ম্যাচে (অবদান রাখতে) থাকবে। সেইসঙ্গে স্পিনাররাও থাকবে। এটা আমাদের জন্য ইতিবাচক।’

উইকেট এমন হলে সাকিব আল হাসান ও মেহেদী হাসান মিরাজের সঙ্গে আরেকজন স্পিনার লাগছেই। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বোলিং করার জন্য ফিট থাকলে কথা ছিল না। তিনি ফিট না থাকাতেই দলের একাদশের চিন্তাতেও এসেছে বদল, ‘মাহমুদউল্লাহ অনুশীলন বোলিং করেছিল একদিন, পরে আর পারেনি। বোলিং করলে ওর প্রচণ্ড ব্যথা হচ্ছে। সেক্ষেত্রে অতিরিক্ত স্পিনার নেওয়ার কথা আমরা ভাবছি। এই মুহূর্তে পরিষ্কার করা কঠিন তবে আমরা ভাবছি। যদি ভাবতে চাই তাহলে সাত নম্বর পজিশনে ব্যাটিং প্লাস অফ স্পিনারের কথাই ভাবতে হয়। বাঁহাতি স্পিনার তো নাই। তাই অফ স্পিনিং অলরাউন্ডারের কথা ভাবছি। তবে এখনো নিশ্চিত না।’

মিরাজ, মাহমুদউল্লাহ ছাড়া অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার স্কোয়াডে আর আছেন একজনই। সেই মোসাদ্দেক হোসেন আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় কাপের ফাইনালে ঝড় তুলে দলকে চ্যাম্পিয়ন বানিয়ে দেখিয়েছেন সাত নম্বরে নিজের অন্য সামর্থ্যও। এখানে অধিনায়কের কাজটাও হয়েছে সহজ। তবে এইক্ষেত্রে বেশ কপাল পুড়তে যাচ্ছে সাব্বিরের।

সাতে নেমে ঝড় তোলা আর বোলিং দিয়ে অবদান রাখা দুটিতেই আপাতত সাব্বির আপাতত পিছিয়ে আছেন। কেননা মোসাদ্দেক নামলে তারা নামার সম্ভবনা যে একেবারেই কম।

উইকেটের সুবিধা পেলে বাংলাদেশ দলের হিসাব নিকাশ আসলে এমনই। তবে উইকেটের সাহায্য পাবেন এটা ধরে নিয়েই নামতে রাজি না মাশরাফি। দেশেও উইকেটের সুবিধা পাওয়া অনেক ম্যাচে বাংলাদেশ যে ফল ঘরে তুলতে পারেনি সে কথাও মনে করিয়ে দিয়েছেন তিনি, ‘উইকেটগুলো যদি এরকম থাকে তাহলে আমরা সাহায্য পেলেও পেতে পারি। তবে আগামীকাল আমাদের দলে বাড়তি স্পিনার থাকছেই।’

আর মাশরাফির কথা শুনেই বুঝা গেল আগামীকাল মোসাদ্দেকের খেলা অনেকটাই নিশ্চিত।

আরও পড়ুন